• ঢাকা
  • |
  • শুক্রবার ১৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ রাত ১০:৪০:১৯ (01-Mar-2024)
  • - ৩৩° সে:
এশিয়ান রেডিও
  • ঢাকা
  • |
  • শুক্রবার ১৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ রাত ১০:৪০:১৯ (01-Mar-2024)
  • - ৩৩° সে:

সাবেক সংসদ সদস্য নদভী ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের মামলা

রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী (স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মোতালেবের কাছে পরাজিত) আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী ও তাঁর স্ত্রী রিজিয়া রেজা চৌধুরীর বিরুদ্ধে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার দুপুরে সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রিকল চাকমা চট্টগ্রামের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-০২ এর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আওলাদ হোসাইন মুহাম্মদ জুনাইদের আদালতে এ মামলাটি করেন। বুধবার সন্ধ্যায় বাদীর আইনজীবী মো. জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নদভীর বিরুদ্ধে গত ৩১ ডিসেম্বর লোহাগাড়ার চুনতী সীরাতুন্নবী (সা.) মাহফিলে এক কোটি টাকা অনুদান ঘোষণা, দলীয় সমর্থকের এক ছেলেকে চাকরি দেওয়ার ঘোষণা এবং অন্য এক সমাবেশে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়ার ঘোষণার অভিযোগ আনা হয়েছে। তাছাড়া নদভীর স্ত্রী রিজিয়া রেজা চৌধুরীও নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে লোহাগাড়ার পুটিবিলার তাঁতীপাড়া এলাকায় এক সমাবেশে দুই লাখ টাকা অনুদান ঘোষণা করেন। এ ছাড়াও তিনি আমিরাবাদ মাস্টার হাটের এক উঠান বৈঠকে সওয়াব কামানোর জন্য, কেয়ামতের মাঠ, পুলসিরাত ও হাশরের মাঠ পার হওয়ার জন্য নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন। এ সব ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মোতালেব ২ জানুয়ারি নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এসব অভিযোগ নদভী ও তাঁর স্ত্রী অস্বীকার করলেও অভিযোগের সত্যতা পান নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান সিনিয়র সহকারী জজ শাহনেওয়াজ মনির।এ ব্যাপারে জানার জন্য সাবেক সংসদ সদস্য আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও সাড়া পাওয়া যায়নি।বাদীর আইনজীবী মো. জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যানের সুপারিশের ভিত্তিতে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের পক্ষে বিধি মোতাবেক সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রিকল চাকমা মামলাটি দায়ের করেছেন।চট্টগ্রাম মহানগর আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর দিদার আলম বলেন, আদালত মামলাটি গ্রহণ করে আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন। মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ২৬ জুন।

জেলার ইতিহাস


দর্শনীয় স্থান