• ঢাকা
  • |
  • রবিবার ৭ই বৈশাখ ১৪৩১ রাত ০১:৪৩:৩৪ (21-Apr-2024)
  • - ৩৩° সে:
এশিয়ান রেডিও
  • ঢাকা
  • |
  • রবিবার ৭ই বৈশাখ ১৪৩১ রাত ০১:৪৩:৩৪ (21-Apr-2024)
  • - ৩৩° সে:

ধামরাইয়ে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে মৎস্য খামারির মৃত্যু

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি: ঢাকার ধামরাইয়ে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে আবু কাশেম (৪২) নামে এক মৎস্য খামারির মৃত্যু হয়েছে।১৬ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলার সুতিপাড়া ইউনিয়নের কিশোরী নগর এলাকায় এ বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। হাসপাতালে নেওয়ার পথে গাড়িতেই তার মৃত্যু হয় আবু কাশেমের।মৃত আবু কাশেম ধামরাইয়ের সুতিপাড়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড পূর্ব বালিথা এলাকার মৃত সমেজ উদ্দিনের ছেলে।মৃতের পরিবার, প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরের দিকে নিজের পুকুরে মাছ ধরতে যান কাশেমসহ আরও চারজন। বিকেলের দিকে বৃষ্টি শুরু হলে আশ্রয় নিতে তারা পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। বেলা সোয়া ৩টার দিকে বিকট শব্দে বজ্রপাত হলে হাঁটার পথেই ছিটকে পড়ে আহত হন কাশেম। উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।প্রত্যক্ষদর্শী শামীম আহমেদ বলেন, আমরা মাছ ধরছিলাম। তখন বৃষ্টি নামে। আশ্রয় নিতে আমরা পাশের একটি বাড়ির দিকে যাচ্ছিলাম। কাশেম ছিল সবার সামনে, ১০ গজ দূরে একজন আর ২০-২৫ গজ দূরে আমি আমার পেছনে অপরজন। তখনই বিকট শব্দে নীল রংয়ের একটা কিছু কাশেমের ঠিক কাছেই পড়ে। কাশেম মাটিতে পড়ে যায়। আমরাও পড়ে যাই। এরপর কয়েক মিনিট পর তাকে নিয়ে পাশের একটি বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা দেই। তারপর তাকে পরিবারের লোকজন হাসপাতালে নিয়ে যায়।মৃতের ছেলে মো. মাসুদ রানা বলেন, দুপুরের দিকে বাবা মাছ ধরতে পুকুরে যান। তিনটার দিকে শুনতে পারি বজ্রপাতের সময় তিনি পড়ে যান। হাসপাতালের নেওয়ার সময় জয়পুরা এলাকায় গাড়িতে তার মৃত্যু হয়। পরে মরদেহ নিয়ে বাড়ি ফিরে আসি।৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. আবু তাহের সরদার বলেন, বজ্রপাতের সময় বিকট আওয়াজে সে ছিটকে পড়ে যায়। তখন তার সঙ্গে আরও চারজন ছিল। তারাই পরবর্তীতে তাকে উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় সে মারা যায়। বিষয়টি শুনে উপজেলা প্রশাসন তার পাশে দাঁড়িয়েছে। আমরাও তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো।এ ঘটনার খবর পেয়ে মৃতের বাড়ি গিয়ে পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দিয়েছে ধামরাই উপজেলা প্রশাসন।ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) খান মো. আব্দুল্লা আল মামুন বলেন, এমন ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক। কাল বৈশাখী ঝড়ের সময় কোনো দুর্ঘটনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে হবে। এখানে বজ্রপাতে যে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে, তাতে আমরা মর্মাহত। তাদেরকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ ২৫ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতেও তাদের সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে।

জেলার ইতিহাস


দর্শনীয় স্থান