• ঢাকা
  • |
  • শুক্রবার ১৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ রাত ১০:৫৬:০০ (01-Mar-2024)
  • - ৩৩° সে:
এশিয়ান রেডিও
  • ঢাকা
  • |
  • শুক্রবার ১৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ রাত ১০:৫৬:০০ (01-Mar-2024)
  • - ৩৩° সে:

কুবিতে শিক্ষকদের হেনস্তায় থানায় জিডি

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) উপাচার্যের কার্যালয়ে শিক্ষকদের হেনস্তা ও হুমকি-ধমকির অভিযোগে উপাচার্যপন্থী দুজন কর্মকর্তা ও সাতজন সাবেক শিক্ষার্থীর নামে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) নবনির্বাচিত শিক্ষক সমিতি সভাপতি ড. মো. আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান।১৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার রাতে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানায় এ অভিযোগ করেন তারা।অভিযুক্ত কর্মকর্তারা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জাকির হোসেন, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. দেলোয়ার হোসেন। এছাড়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পদে চাকরির আবেদন করা ও ছাত্রলীগের পদপ্রার্থীরা হলেন মো. ইমরান হোসাইন, অনুপম দাস বাধন, রকিবুল হাসান রকি, আমিনুর রহমান, ইমাম হোসাইন মাসুম, রাকিব, জাহিদুল ইসলামসহ অজ্ঞাতনামা আরও ২০-৩০ জন।অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে, বিকেল চারটার দিকে নবনির্বাচিত শিক্ষক সমিতির নেতাকর্মীরা উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করতে গেলে জাকির হোসেন ও ইমরান হোসাইনের নেতৃত্বে কয়েকজনকে নিয়ে শিক্ষকদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও হেনস্তার চেষ্টা করে। এ সময় তারা আমাদের সঙ্গে মারমুখী আচরণ শুরু করে এবং প্রাণনাশের হুমকি ও ভয়ভীতি দেখাতে শুরু করে। একপর্যায়ে উপাচার্যের উপস্থিতিতে শিক্ষকদের ‌‌‘থাপ্পড় দিয়ে দাঁত ফেলে দেবো’- বাক্য চয়ন করে হুমকি দেয়। তখন উপাচার্য ও প্রক্টরিয়াল বডির কাছে নিরাপত্তা চাইলে আমাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হন।আরও বলা হয়, উপাচার্য আমাদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা না করেই নিজ বাসভবনে চলে যান। বর্তমানে আমিসহ আমাদের শিক্ষকরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। ভবিষ্যতে আমাদের যেকোনো সময় ক্ষতিসাধন করার আশঙ্কা করছি। বিষয়টি উপস্থিত শিক্ষকদের সাথে পরামর্শ করে শিক্ষকদের স্বাক্ষরসহ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করলাম। একই সময় প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষক থানায় উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত শিক্ষকদের স্বাক্ষরসহ সংযুক্তি দিয়ে এ অভিযোগ করেন।থানায় অভিযোগের বিষয়ে ড. তাহের বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে যদি আমরা নিরাপদ না থাকি, তাহলে আমরা অবশ্যই রাষ্ট্রের কাছে নিরাপত্তা চাইবো। প্রশাসন আমাদের নিরাপত্তা দিতে পারেনি। উপাচার্যের কাছে আমরা নিরাপত্তা চেয়েও আমরা নিরাপত্তা পাইনি এবং প্রক্টরিয়াল বডিও আমাদের নিরাপত্তা দেয়নি। এখন আমাদের শিক্ষকেরা নিরাপত্তাহীনতায় আছে। এজন্য আমরা রাষ্ট্রের কাছে নিরাপত্তা চেয়ে জিডি করেছি।’জিডির বিষয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘আমরা তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেবো।’এদিকে শিক্ষকদের নিরাপত্তার বিষয়টি জানতে উপাচার্য ও প্রক্টরের অফিসে না পেয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

জেলার ইতিহাস


দর্শনীয় স্থান