• ঢাকা
  • |
  • বুধবার ১১ই আষাঢ় ১৪৩১ রাত ০৩:১০:৩৩ (26-Jun-2024)
  • - ৩৩° সে:
এশিয়ান রেডিও
  • ঢাকা
  • |
  • বুধবার ১১ই আষাঢ় ১৪৩১ রাত ০৩:১০:৩৩ (26-Jun-2024)
  • - ৩৩° সে:
 একই মাসে দুইবার দিল্লী সফর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বহিঃপ্রকাশ: প্রধানমন্ত্রী

একই মাসে দুইবার দিল্লী সফর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বহিঃপ্রকাশ: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: একই মাসে দুইবার দিল্লী সফর বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এবার ২১ ও ২২ জুন আমি রাষ্ট্রীয় দ্বিপাক্ষিক সফর করলাম। একই মাসে সরকার প্রধান হিসেবে দু’বার দিল্লি সফর আমার জন্য এক অভূতপূর্ব ঘটনা। এসবই আমাদের দু’দেশের মধ্যে ঘনিষ্ঠভাবে একে অপরের সঙ্গে কাজ করার প্রমাণ বহন করে।২৫ জুন মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী সাম্প্রতিক ভারত সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে আমি ২১ ও ২২ জুন ২০২৪ ভারতে রাষ্ট্রীয় সফর করি। ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে আমাদের নতুন সরকার গঠনের পর এটিই ছিল কোনো দেশে আমার প্রথম দ্বিপাক্ষিক সফর। একইসঙ্গে, ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচন-পরবর্তী সরকার গঠনের পর ভারতেও ছিল এটি প্রথমবারের মত কোন রাষ্ট্র প্রধান বা সরকার-প্রধানের দ্বিপাক্ষিক সফর। এটি অবশ্যই আমার এবং বাংলাদেশের মানুষের জন্য অত্যন্ত সম্মানের। পাশাপাশি বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সহযোগিতামূলক বিশেষ সম্পর্কেরই বহিঃপ্রকাশ।তিনি বলেন, ভারত বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ও নিকটতম প্রতিবেশি, বিশ্বস্ত বন্ধু এবং আঞ্চলিক অংশীদার। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে যে সম্পর্কের সূচনা হয় তাকে বাংলাদেশ সবসময়ই বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে আসছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দু’দেশই রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়সহ উচ্চপর্যায়ের মধ্যে যোগাযোগ ও সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে।শেখ হাসিনা বলেন, ভারতের টানা তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং তাঁর নবগঠিত মন্ত্রিসভার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান গত ৯ জুন অনুষ্ঠিত হয়। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আমি ৮ থেকে ১০ জুন নয়াদিল্লি সফর করি। সেখানে প্রতিবেশি দেশগুলোর রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানসহ অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে আমন্ত্রণ জানান হয়। সেই সফরে আমি ভারতের রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে কুশল বিনিময়ের পাশাপাশি ওই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত দক্ষিণ এশিয়াসহ অন্যান্য দেশসমূহের একাধিক সরকার প্রধানের সঙ্গে মতবিনিময় করি। পাশাপাশি আলাদাভাবে আমার সঙ্গে ভুটান এবং শ্রীলঙ্কার সরকার প্রধানগণের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়। এসব আলোচনা ও বৈঠক আমাদের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ককে সুদৃঢ় করতে সহায়ক হবে।এ সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী, আম্বাসাডর অ্যাট লার্জ, বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী, বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী, কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা,এবং কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও একটি সাংবাদিক প্রতিনিধিদল আমার সফরসঙ্গী ছিলেন।প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন মোদির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে দিল্লি সফরকালে তিনি সোনিয়া, প্রিয়াঙ্কা ও রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এছাড়া বিজেপি’র সিনিয়র নেতা এল কে আদভানীর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন।শেখ হাসিনা বলেন, তিনি ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মূখার্জির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন। ২১ জুন দিল্লি পালাম বিমানবন্দরে আমাকে বর্ণাঢ্য অভ্যর্থনা ও সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্বাগত জানানো হয়। ওইদিন সন্ধ্যায় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস. জয়শঙ্কর আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এছাড়াও, ভারতের একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদল আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারের সম্ভাবনা ও পন্থা নিয়ে আলোচনা করেন। এ সময় আমার সফরসঙ্গী ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলও আলোচনায় অংশ নেন।২২ জুন রাষ্ট্রপতি ভবনে আমাকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আনুষ্ঠানিক রাষ্ট্রীয় অভ্যর্থনা জানান। সেখানে তাঁর উপস্থিতিতে আমাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এরপর, আমি রাজঘাটে ভারতের জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধীর সমাধিতে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করি। দুপুরে আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আমার একাধিক বৈঠক হয়। ঐতিহাসিক হায়দ্রাবাদ হাউজে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আমি বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেই। অন্যদিকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন নরেন্দ্র মোদী।বৈঠককালে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক ক্রমাগত বিকশিত এবং দ্রুত অগ্রসর হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী চলমান অস্থিতিশীলতা ও অনিশ্চয়তার মধ্যে প্রতিবেশিদের সঙ্গে সুসম্পর্ক এবং আঞ্চলিক সহযোগিতার উপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, তাঁরা বাংলাদেশের সঙ্গে আরও গভীরভাবে কাজ করতে আগ্রহী। বাংলাদেশ তাঁদের ‘প্রতিবেশি প্রথম’, ‘অ্যাক্ট ইস্ট’, ‘সমুদ্র ও ইন্দো-প্যাসিফিক’ নীতির কেন্দ্রে রয়েছে।সরকারপ্রধান বলেন, আমরা দু’দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ও সম্পৃক্ততার পথ এবং কার্যপন্থা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমরা আমাদের দু’দেশের এবং জনগণের কল্যাণের জন্য আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করার বিষয়ে সম্মত হয়েছি। বৈঠকে আমরা অন্যান্য পারস্পরিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ের মধ্যে রাজনীতি ও নিরাপত্তা, শান্তিপূর্ণ ও সুরক্ষিত সীমান্ত ব্যবস্থাপনা এবং সীমান্তে হতাহতের ঘটনা শুন্যে নামিয়ে আনা, বাণিজ্য ও সংযোগ, অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা ও পানি বণ্টন, জ্বালানি ও শক্তি এবং আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করি। আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীকে তাঁর সুবিধাজনক সময়ে যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশে দ্বিপাক্ষিক সফরে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছি।বৈঠক শেষে উভয় দেশের মধ্যে ৫টি নতুন সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত ও বিনিময় হয় এবং ৩টি নবায়িত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত ও বিনিময় হয়। এছাড়া, ২টি রূপকল্প ঘোষণা স্বাক্ষরিত ও বিনিময় হয়। বৈঠকে ভবিষ্যত কাজের ক্ষেত্র হিসেবে ১৩টি যৌথ কার্যক্রমের ঘোষণা দেওয়া হয়।সমঝোতা স্মারক বিনিময় শেষে আমি এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখি। পরে আমার ও আমার সফরসঙ্গীদের সম্মানে আয়োজিত মধ্যাহ্ন ভোজে অংশ নেই।দিল্লি ছাড়ার আগে অপরাহ্নে আমি ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু এবং উপ-রাষ্ট্রপতি জগদীপ ধানখারের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করি। ভারতের রাষ্ট্রপতি ও উপ-রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতকালে আমরা দু’দেশের বন্ধুত্ব এবং সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্কের ওপর গুরুত্বারোপ করি। তাঁরা বিগত ১৫ বছরে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও স্থিতিশীলতার ভূয়সী প্রশংসা করেন।প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বিগত ১৫ বছরে একটি অনন্য উচ্চতায় উন্নীত হয়েছে। যার সুফল দু’দেশের জনগণ ভোগ করছেন। বিশেষ করে ২০২৩ সালে দু’দেশের সম্পর্কে নতুন মাত্রা যুক্ত হয়েছে। গত বছর আমি এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী যৌথভাবে যোগাযোগ ও বিদ্যুৎখাতে চারটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেছি। বাংলাদেশ-ভারত যৌথভাবে বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছে। দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র দেশ হিসেবে আমি ভারতের আমন্ত্রণে জি-২০ সম্মেলনে যোগদান করেছি। বাংলাদেশ এবং ভারত দু’দেশেই নতুন সরকার গঠনের পর এ সফর অনুষ্ঠিত হলো।এ সফরকালে ভারতের নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনার মূল বিষয়বস্তু ছিল নব-নির্বাচিত দুটি সরকার কীভাবে সহযোগিতামূলক সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে সে বিষয়ে একটি রূপকল্প প্রণয়ন।যেহেতু নতুন সরকার গঠনের মাধ্যমে ঢাকা ও দিল্লি নতুনভাবে পথ-চলা শুরু করেছে, সে ধারাবাহিকতায় ‘রূপকল্প ২০৪১’ এর ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠা এবং ‘বিকশিত ভারত ২০৪৭’ নিশ্চিত করার জন্য ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণ করার ব্যাপারে আমরা আলোচনা করেছি।এ সফর ছিল সংক্ষিপ্ত কিন্তু অত্যন্ত ফলপ্রসু। আমি মনে করি ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করার ক্ষেত্রে এ সফর সুদূরপ্রসারী ভূমিকা রাখবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

১৪ ঘন্টা আগে



























শিশু অপহরণের ভিডিও পাঠিয়ে পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি, গ্রেফতার ২

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি: ঢাকার কেরানীগঞ্জে শাহিল (৮) নামের এক শিশুকে অপহরণ করার ভিডিও বাবার কাছে পাঠিয়ে মুক্তিপণ দাবির ঘটনায় দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার ও শিশুটিকে উদ্ধার করেছে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। গ্রেফতাররা হলো- আল-আমিন (২৭) ও নুর ইসলাম (৩৫)। তারা দু’জনেই রাজধানীর কাফরুল থানাধীন উত্তর ইব্রাহিমপুরের বাসিন্দা।২৫ জুন মঙ্গলবার দুপুরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মামুনুর রশিদ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গত রোববার রাত আটটার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন গোলাম বাজার এলাকার সানোয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া ফল ব্যবসায়ী মো. রুবেলের আট বছরের ছেলে শাহিল বাসার নিচ থেকে নিখোঁজ হয়। পরদিন সকালে তার মুঠোফোনে ফোন করে ছেলেকে অপহরণ করা হয়েছে বলে পাঁচ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে এবং বিষয়টি নিশ্চিত করতে অপহরণের পর ছেলেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থার একটি ভিডিও তার মোবাইলে পাঠানো হয়। বিষয়টি কাউকে জানালে ছেলেকে হত্যা করা হবে এমন হুমকি দেয়ার পর রুবেল কাউকে কিছু না বলে মুক্তি পণ দেয়ার জন্য টাকা জোগাড় করতে থাকে।পরে টাকা জোগাড় করতে না পেরে নিরুপায় হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় গিয়ে অভিযোগ করলে এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি মামলা (মামলা নম্বর ৬২) দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পরপরই তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামীদের শনাক্ত করে অফিসার ইনচার্জ মামুনুর রশিদের নেতৃত্বে থানা পুলিশের একটি দল ৬ ঘণ্টার মধ্যে আসামি দুজনকে গ্রেফতার করে এবং তাদের হেফাজত থেকে শিশু শাহিলকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে।তিনি আরও জানান, অপহরণের সাথে আর কেউ জড়িত আছে কিনা এ বিষয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের করার জন্য আসামিদের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

২৫ জুন ২০২৪ দুপুর ০২:৪০:৪৯

রফতানির পরিমাণ বাড়াতে আমদানির বিকল্প নেই: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম বলেন, রফতানির পরিমাণ বাড়াতে আমদানির বিকল্প নেই। যত কম মূল্য সংযোজন হোক, এই ভ্যালু চেইনটা যদি তৈরি করতে পারলেই শিল্প-কারখানা গড়ে উঠবে। সেখানে মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।বৃহস্পতিবার টিসিবি ভবনে অবস্থিত বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিটিউটের (বিএফটিআই) কনফারেন্স রুমে ‘বাংলাদেশের বাণিজ্য নীতি: বিবর্তন, বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ দিক নির্দেশনা’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পণ্য রপ্তানির চেয়ে বেশি কর্মসংস্থানের দিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন উল্লেখ করে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা কত টাকার পণ্য আমদানি করলাম, কত টাকার পণ্য রপ্তানি করলাম, সেটা বড় কথা নয়। আমরা কত কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারলাম সেটি বড় কথা। আমরা যত বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারব, তত আমাদের মূল্য সংযোজন হবে।তিনি বলেন, তৈরি পোশাক খাত যেসব সুবিধা পাচ্ছে, একইভাবে চামড়া ও পাটশিল্পও যেন সুবিধা পায়। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী এবার দায়িত্বের পর এই নির্দেশনা দিয়েছেন। দেশের জনশক্তিকে কাজে লাগানো এবং চামড়া ও পাটশিল্পকে উন্নত করা গেলে দেশ আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবে।আহসানুল ইসলাম বলেন, একাধিক দেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক অংশীদারত্ব নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। আঞ্চলিক সম্পর্ক জোরদারে কাজ করা হচ্ছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রায় ২৬টি দেশের সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে কাজ করছে। বর্তমানে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ প্রচার করা হচ্ছে কিন্তু সেভাবে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। বৈদেশিক বাণিজ্য চুক্তির মাধ্যমে চেষ্টা করতে হবে। চলতি বছর লজিস্টিক পলিসি চালু করা হয়েছে। এটাকে কীভাবে বৈশ্বিকভাবে লাভবান হওয়া যায় তা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।তিনি আরও বলেন, একসময় আমাদের চা ও পাট ছাড়া কোনো রপ্তানিযোগ্য পণ্য ছিল না। সে জায়গা থেকে উত্তরণ করা হয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে এখন স্মার্ট বাংলাদেশের কথা বলা হচ্ছে। স্মার্ট বাংলাদেশের বাণিজ্যের জন্য ইলেকট্রনিকস পণ্য একটি বড় খাত হতে পারে। এটি শুধু অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণের পাশাপাশি বিদেশে রপ্তানিরও একটি বড় সম্ভাবনাময় খাত হতে পারে।বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান (সিনিয়র সচিব) ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীনের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাং সেলিম উদ্দিন ও ফেডারেশন অব চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মাহবুব আলম।  অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান ড. জাইদি সাত্তার। এর ওপর আলোচনা করেন বিএফটিআই এর সিইও ড. জাফর উদ্দিন, বিল্ডের সিইও ফৈরদৌস আরা বেগম ও ফেডারেশন অব চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) উপদেষ্টা মনজুর আহমেদ।  

২০ জুন ২০২৪ রাত ০৮:৫৫:২৭

রাসিক মেয়রের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৮ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাসে ৭টায় কুমারপাড়াস্থ মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।  এ সময় তিনি বলেন, যাদের সামর্থ হয়েছে তারা ঈদের আনন্দ উদযাপন করেছেন, আর যাদের সামর্থ নাই তাদের পাশে আমরা থেকেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিয়েছেন সকল শ্রেণির মানুষের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে এবং দ্রুত কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করতে। রাজশাহী সিটি করপোরেশন তা করতে সফল হয়েছে।রাসিক মেয়র বলেন, কোন প্রকারের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য আপনাদেরকে আহ্বান জানাচ্ছি। কর্মসংস্থানসহ রাজশাহীকে সকল দিক দিয়ে আমি আপনাদেরকে সাথে নিয়েই সামনে এগিয়ে যেতে চাই। আগামী ১০ বছর পরে যে কাজগুলো বাস্তবায়ন হওয়ার কথা আমরা এখনই সে কাজগুলো বাস্তবায়ন করে রাজশাহীসহ উত্তরাঞ্চলের সকল এলাকার সুষম উন্নয়নে অবদান রাখতে চাই।রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অনিল কুমার সরকার, রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ এমপি ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী।এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি ডা. তবিবুর রহমান শেখ, সাবেক সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমান, সাবেক সভাপতি অ্যাড. মোজাফফর হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টু, দফতর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, প্রচার সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জিয়া হাসান আজাদ হিমেল, শ্রম সম্পাদক আব্দুস সোহেল, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কামারউল্লাহ সরকার কামাল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. ফ ম আ জাহিদ, কোষাধ্যক্ষ হাবিবুল্লাহ ডলার, সদস্য নজরুল ইসলাম তোতা, শাহাব উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আব্দুল মান্নান, আব্দুস সালাম, বাদশা শেখ, ইউনুস আলী, মোখলেশুর রহমান কচি, অ্যাড. রাশেদ-উন-নবী আহসান, থানা আওয়ামী লীগের মধ্যে রাজপাড়া থানার সাধারণ সম্পাদক শেখ আনসারুল হক খিচ্চু, বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানার সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতন, বোয়ালিয়া (পূর্ব) থানার সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, শাহ্ মখদুম থানার সাধারণ সম্পাদক শাহাদত আলী শাহু, মতিহার থানার সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরবৃন্দ, নগর শ্রমিক লীগ সভাপতি মাহাবুবুল আলম, সাধারণ সম্পাদক আকতার আলী, নগর কৃষক লীগ সভাপতি রহমতউল্লাহ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক সাকির হোসেন বাবু, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আব্দুল মোমিন, নগর ছাত্রলীগ সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম, সাধারণ সম্পাদক ডা. সিরাজুম মুবিন সবুজসহ নগর যুবলীগ, নগর মহিলা আওয়ামী লীগ, নগর যুব মহিলা লীগ, সাবেক ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স,  নগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ, দিনের আলো হিজড়া সংঘ, নগর বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার নেতৃবৃন্দ।

১৯ জুন ২০২৪ রাত ০৮:২৩:৪০

উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ কারামুক্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অবশেষে দীর্ঘ কয়েক বছরের আইনি লড়াইয়ের পর কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। ২৪ জুন সোমবার এক এক্স বার্তায় উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা অ্যাসাঞ্জ মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, ফেন-ফলোয়ারসহ সকলকে এ তথ্য জানিয়েছেন।এক্স বার্তায় বলা হয়েছে, মার্কিন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে অ্যাসাঞ্জ সমঝোতা চুক্তিতে পৌঁছেছেন। ফৌজদারি অপরাধের দোষ স্বীকার করায় অ্যাসাঞ্জকে কারামুক্ত করা হয়েছে। জন্ম সূত্রে অস্ট্রেলিয়ান ৫২ বছর বয়সী অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে জাতীয় প্রতিরক্ষা-সংক্রান্ত তথ্য ফাঁসের ষড়যন্ত্র করার অভিযোগ এনেছিল যুক্তরাষ্ট্র।২০১০ ও ২০১১ সালে ইরাক ও আফগানিস্তান যুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের লাখ লাখ গোপন সামরিক-কূটনৈতিক নথি ফাঁস করে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা অ্যাসাঞ্জ। এ ঘটনায় অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে ১৮টি মামলার তদন্ত করছে মার্কিন বিচার বিভাগ।গত পাঁচ বছর ধরে অ্যাসাঞ্জ যুক্তরাজ্যের কারাগারে আটক ছিলেন। সেখান থেকে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যার্পণের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন। স্থানীয় সময় সোমবার যুক্তরাজ্যের বেলমার্শ কারাগার থেকে অ্যাসাঞ্জ বের হয়েছেন। এই কারাগারের একটি ছোট্ট প্রকোষ্ঠে ১ হাজার ৯০১ দিন আটক ছিলেন তিনি।এদিকে তার স্ত্রী স্টেলা মরিস অ্যাসাঞ্জ এক্স পোস্টে সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন । তিনি বলেছেন, তারা (সমর্থকেরা) বছরের পর বছর ধরে একত্রিত হয়েছেন এবং দিনটিকে বাস্তবে পরিণত করেছেন। সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

২৫ জুন ২০২৪ সকাল ১০:১৭:১৭


জামিন পেলেন পরীমনি
২৫ জুন ২০২৪ দুপুর ১২:৪৮:৫৭

চিত্রনায়িকা সুনেত্রা আর নেই
১৪ জুন ২০২৪ সকাল ১০:২০:১৪

মাত্র ১৬ ভোটে ডিপজলের কাছে হেরে গেলেন নিপুণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪–২৬ মেয়াদি নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন মিশা-ডিপজল প্যানেল। ২০ এপ্রিল শনিবার সকালে শিল্পী সমিতির নির্বাচনের এ ফল ঘোষণা করছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলম খসরু।কার্যনির্বাহী পরিষদের ফলাফল ঘোষণা করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার জানান, সভাপতি পদে মিশা সওদাগর ২৬৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ১৭০ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন মাহমুদ কলি।অপরদিকে মাত্র ১৬ ভোটের ব্যবধানে সাধারণ সম্পাদক পদে মনোয়ার হোসেন ডিপজলের কাছে হেরে গেছেন নির্বাচনের আলোচিত মুখ নিপুণ আক্তার। ডিপজল ২২৫ ভোট পেয়েছেন ও নিপুণ আক্তার পেয়েছেন ২০৯ ভোট।সহ-সভাপতি পদে মিশা-ডিপজল পরিষদ থেকে ২৩১ ভোটে মাসুম পারভেজ রুবেল ও ২৩৪ ভোট পেয়ে ডি এ তায়েব নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে মাহমুদ কলি-নিপুণ পরিষদের অমিত হাসান ২২৯ ভোট ও ড্যানি সিডাক ১৭৬ ভোট পেয়েছেন।সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে মিশা-ডিপজল পরিষদের আরমান ২৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে মাহমুদ কলি-নিপুণ পরিষদের বাপ্পি চৌধুরী পেয়েছেন ১৯৮ ভোট।সাংগঠনিক সম্পাদক পদেও মিশা-ডিপজল পরিষদ থেকে জয়ী হয়েছেন জয় চৌধুরী। তিনি ২৫০ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে মাহমুদ কলি-নিপুণ পরিষদ থেকে অঞ্জনা রহমান পেয়েছেন ১৮৫ ভোট।আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে ২৮৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আলেক জান্ডার বো। তার নিকটতম নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মারুফ আকিব পেয়েছেন ১৪৯ ভোট।দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে মিশা-ডিপজল পরিষদ থেকে ২৪৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন জ্যাকি আলমগীর। অপরদিকে তার  নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কাবিলা পেয়েছেন ১৯০ ভোট।সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ডন পেয়েছেন ২০০ ভোট। অপরদিকে মামনুন ইমন ২৩৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।নির্বাচনে কোষাধ্যক্ষ পদে দুইজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। আজাদ খান ২০৪ ভোট ও কমল ২৩১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।এছাড়াও কার্জনির্বাহী পরিষদের যে ১১ সদস্য জয়ী হয়েছেন তারা হলেন, আলীরাজ ২৩৯, চুন্নু ২৪৮, দিলারা ইয়াসমিন ২১৮, নানা শাহ ২১০, পলি ২২০, রোজিনা ২৪৩, রত্না কবির ২৬৩, শাহনূর ২৪৫, সুচরিতা ২২৮, সুব্রত ২১৬, সনি রহমান ২৩০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে ইউসুফ খান ১১০, সাদিয়া মির্জা ১৭৭, জেসমিন আক্তার ১৮৮, তানভীর তনু ১৮১, নাসরিন ১৪৭, নিরঞ্জন সরকার ৯৬, নাদের চৌধুরী ১৯৯, শহীদুল হারুন ১৬৩, বাদল শেখ ৪৩, ফিরোজ শাহী ৭৪, হেলেনা জাহাঙ্গীর ১৭০, স্বপ্না ৫৬, সাঞ্জু জন ১২২, সুজাতা আজিম ১৫৭ ও সাইফ খান ১৫১ ভোট পেয়েছেন।প্রসঙ্গত, এবারের শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ৫৭০। এর মধ্যে ৪৭৫ জন ভোট দিয়েছেন। এছাড়া প্রাপ্ত ভোটের মধ্যে ৪১টি  ব্যালট বাতিল হয়েছে।

২০ এপ্রিল ২০২৪ সকাল ০৮:২৫:৫৮
আলোকচিত্রীদের দেখে রেগে গেলেন সারা
১ এপ্রিল ২০২৪ দুপুর ১২:০৫:৫৯

আলোকচিত্রীদের দেখে রেগে গেলেন সারা
১ এপ্রিল ২০২৪ দুপুর ১২:০৫:৫৯

চলে গেলেন কিংবদন্তি গায়ক পঙ্কজ উদাস
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ রাত ০৮:০৮:৫৮

পুলিশে নিয়োগ পরীক্ষায় সানি লিওনের ছবি!
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ বিকাল ০৫:১১:৪১

করোনায় দক্ষিণী তারকা বিজয়কান্তের মৃত্যু

বিনোদন ডেস্ক: ভারতের তামিল সিনেমার বরেণ্য অভিনেতা বিজয়কান্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।২৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার চেন্নাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃতুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।ইন্ডিয়া টুডে’র সংবাদে জানা যায়, বিজয়কান্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তার চিকিৎসাও চলছিল। পরে নিউমোনিয়াতেও আক্রান্ত হয়েছিলেন এ অভিনেতা। ফলে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয় বিজয়কান্তের।পরে ‘ভেন্টিলেটর সাপোর্ট সিস্টেম’-এ রাখা হয়েছিল তাকে। ১৪ দিন যুদ্ধের শেষে বৃহস্পতিবার না ফেরার দেশে চলে যান এ অভিনেতা।‘ক্যাপ্টেন’ নামেই ভক্ত-অনুরাগীদের কাছে বিজয়কান্ত পরিচিত ছিলেন। এর আগে গত নভেম্বরেও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। তবে সে যাত্রায় তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছিলেন।অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতির মাঠেও সমানতালে সফলতা লাভ করেছিলেন দক্ষিণী এই তারকা । ২০১১ সালে এডিএমকে নেত্রী জয়ললিতার হাত ধরে ২৯টি আসন জিতেন বিজয়কান্তের ‘ডিএমডিকে’।এরপরে জয়ললিতার সঙ্গে জোট ভাঙায় ‘ডিএমডিকে’র এই নেতা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা হন । তার মৃত্যুতে পুরো ভারতবর্ষে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

২৮ ডিসেম্বর ২০২৩ বিকাল ০৩:০৫:৩৭
এবার গান নকল করে ক্ষমা চাইলেন সোনু নিগম
১৬ ডিসেম্বর ২০২৩ রাত ০৯:৫৬:৫৯



সালমানকে খুনের হুমকি!
১ ডিসেম্বর ২০২৩ রাত ০৯:৪২:০৯

৯৬তম অস্কার জিতল ‘ওপেনহাইমার’
১১ মার্চ ২০২৪ সকাল ১০:১১:৪৫

৯৬তম অস্কার জিতল ‘ওপেনহাইমার’
১১ মার্চ ২০২৪ সকাল ১০:১১:৪৫

হলিউডে অভিষেক হচ্ছে ওবামাকন্যা মালিয়ার
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ বিকাল ০৫:৪৭:৩২

চলে গেলেন বিখ্যাত হলিউড অভিনেতা টম উইলকিনস
৩১ ডিসেম্বর ২০২৩ দুপুর ০১:২৬:১৬

চলে গেলেন হলিউড অভিনেতা অ্যাঙ্গাস ক্লাউড

বিনোদন ডেস্ক: বাবা কনর হিকি মারা যাওয়ার পরের সপ্তাহেই চলে গেলেন হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা অ্যাঙ্গাস ক্লাউড। ৩১ জুলাই সোমবার কালিফোর্নিয়ার অকল্যান্ডের বাসায় মৃত্যুবরণ করেন ২৫ বছর বয়সী এ অভিনেতা। খবর বিবিসির।অভিনেতার ব্যক্তিগত ম্যানেজার ক্যাট বেইলি গণমাধ্যমকে অভিনেতার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনি অভিনেতার মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করেননি।ক্লাউডের পরিবার জানিয়েছেন, তাদের ছেলে আর বেঁচে নেই।অ্যাঙ্গাস ক্লাউডের বাবা কনর হিকি গত সপ্তাহেই মারা গেছেন। তার মৃত্যুর পর তিনি খুবই ভেঙে পড়েছিলেন এবং মানসিকভাবে লড়াই করছিলেন।এইচবিও সিরিজ ‘ইউফোরিয়া’তে ড্রাগ ডিলার ফেজকো ‘ফেজ’ ও ‘নিল’ চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন অ্যাঙ্গাস ক্লাউড। এই সিরিজের প্রথম ২ সিজনে অভিনেত্রী জেন্ডায়ার সঙ্গে তিনি অভিনয় করেন। তৃতীয় সিজনের এখনও শুটিং শুরু হয়নি। তার মধ্যেই না ফেরার দেশে চলে গেলেন এই জনপ্রিয় অভিনেতা। 

২ আগস্ট ২০২৩ দুপুর ১২:১০:৩০
জামিন পেলেন পরীমনি
২৫ জুন ২০২৪ দুপুর ১২:৪৮:৫৭

ওজন কমিয়ে নতুন লুকে শাবনূর
২৪ জুন ২০২৪ বিকাল ০৫:৪২:০৪

এবার পাঁচ সিনেমায় জমবে ঈদ
১৬ জুন ২০২৪ দুপুর ০১:৫৮:৩৮

এসএ টিভির ঈদ আয়োজন
১৪ জুন ২০২৪ বিকাল ০৫:৫৮:৫৫

মুক্তির অপেক্ষায় ঐশিকা ঐশির ‘হৈমন্তীর ইতিকথা’

বিনোদন প্রতিবেদক: আগামী ২৬ জুলাই সারাদেশে মুক্তি পাচ্ছে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোটগল্প ‘হৈমন্তী’ অবলম্বনে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘হৈমন্তীর ইতিকথা’। এই চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেছেন মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন।‘হৈমন্তী’ রবীন্দ্রনাথের একটি বিখ্যাত ছোটগল্প। এই চলচ্চিত্রের নাম ভূমিকা রূপায়ন করেছেন নবাগত চিত্রনায়িকা ঐশিকা ঐশি।হৈমন্তীর ইতিকথা দিয়ে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা ঐশিকা ঐশী বলেন, অনেক স্বপ্ন নিয়ে সিনেমায় কাজ করতে এসেছি। আর প্রথম সিনেমাতেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাহিত্যের চরিত্রে হাজির হতে যাচ্ছি। এটা আমার জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি।’তিনি আরও বলেন, আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। মির্জা সাখাওয়াৎ ভাইয়ের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। তার মতো গুণী পরিচালকের সঙ্গে কাজ করাটাও আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। আমি সব দর্শককে অনুরোধ করবো হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখবেন।‘হৈমন্তীর ইতিকথা’ চলচ্চিত্রে আরও অভিনয় করেছেন সাইফ খান, ঝুনা চৌধুরী, রাশেদা চৌধুরী, খলিলুর রহমান কাদেরী, মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন, মুনা আক্তার, অরূপ কুন্ডু, মো. আব্দুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আবদুল হামিদ, আনিছুর রহমান, সিনথিয়া লিজা ও শিশুশিল্পী সিমন্তিনী চৌধুরী প্রমুখ।চলচ্চিত্রটিতে চিত্রায়ন করা হয়েছে বেশ কয়েকটি রবীন্দ্রসংগীত। এতে কণ্ঠ দিয়েছেন প্রখ্যাত রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী ড. অণিমা রায়, মামুন জাহিদ, শিমু দে ও জয়ন্ত আচার্য্য। সংগীতায়ন করেছেন দীনবন্ধু দাশ।

২৫ জুন ২০২৪ বিকাল ০৩:৪১:০৭

বাংলাদেশকে হারিয়ে সেমিতে আফগানিস্তান

ক্রীড়া ডেস্ক: টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে ইতিহাস গড়লো আফগানিস্তান। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠে গেলো রশিদ খানের দল।বাংলাদেশকে ৮ রানে হারিয়ে এই কৃতিত্ব অর্জন করলো আফগানরা। পরিবর্তিত লক্ষ্য ১১৪ রানও করতে পারলো না টাইগাররা। অলআউট হলো ১০৫ রানে।বাংলাদেশ দলকে এবারের আসর থেকে হারানোর সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বকাপ জয়ী অস্ট্রেলিয়াকেও সুপার এইট থেকে বিদায় করে দিলো আফগানিস্তান।অথচ সেমি সেমিফাইনালে ওঠার দারুণ সুযোগ ছিল বাংলাদেশেরও। সুযোগটা নিতে পারেনি নাজমুল হোসেন শান্তর দল। তাই সাজঘরে ফিরতে হলো টাইগারদেরও।

২৫ জুন ২০২৪ সকাল ১১:৩৭:১৬





নেপালকে তাড়িয়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ
১৭ জুন ২০২৪ সকাল ১০:৩৭:০৬



সাকিব আবারও এক নম্বর অলরাউন্ডার
৫ জুন ২০২৪ সন্ধ্যা ০৬:৫৮:৫৩






ঢাকায় পৌঁছেছেন টাইগারদের নতুন কোচ
২৩ এপ্রিল ২০২৪ সকাল ১০:৫৭:৪৬








বাংলা ঝরে তিনশ’র আগেই থামল শ্রীলঙ্কা
২২ মার্চ ২০২৪ বিকাল ০৫:২৩:২১

টেস্ট থেকে বাদ পড়লেন মুশফিক
২০ মার্চ ২০২৪ সকাল ০৭:২৯:২৬

তামিম-রিশাদ ঝড়ে বাংলাদেশের সিরিজ জয়
১৮ মার্চ ২০২৪ রাত ০৯:০৯:০৯

শান্তর সেঞ্চুরিতে জয় বাংলাদেশের
১৪ মার্চ ২০২৪ সকাল ০৮:০৬:৫১