• ঢাকা
  • |
  • বৃহঃস্পতিবার ১৬ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বিকাল ০৪:৩২:৩৩ (30-May-2024)
  • - ৩৩° সে:
এশিয়ান রেডিও
  • ঢাকা
  • |
  • বৃহঃস্পতিবার ১৬ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বিকাল ০৪:৩২:৩৩ (30-May-2024)
  • - ৩৩° সে:

জেলার খবর

মাধবপুরে অস্তিত্ব সংকটে সোনাই নদী

১২ এপ্রিল ২০২৩ দুপুর ০১:১৭:৪৪

মাধবপুরে অস্তিত্ব সংকটে সোনাই নদী

সোনাই নদী

আজিজুর রহমান জয়, মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের মাধবপুরে সোনাই নদীতে দূষিত বর্জ্য ও ময়লা আর্বজনা ফেলায় এক সময়ের প্রবল প্রমত্তা বহমান এ নদী এখন খালে পরিণত হয়েছে। পড়েছে অস্তিত্বে সংকটে। নদীর এই করুণ অবস্থা দেখার যেন কেউ নেই।

প্রতিদিন মাধবপুর বাজারের বিভিন্ন প্লাস্টিক সামগ্রী দূষিত বর্জ্য ও পচা আবর্জনা নদীতে ফেলা হচ্ছে। ফলে ধীরে ধীরে ভরাট হয়ে যাচ্ছে নদী। কালের পরিক্রমায় এক সময়ের প্রবল প্রমত্তা বহমান এ নদী এখন ছোট খালে পরিণত হয়েছে।

নদী ভরাটের পাশাপাশি নদীর জায়গা দখল করে দু’পাড়ে গড়ে উঠেছে অবৈধ স্থাপনা। দীর্ঘদিন সোনাই নদী খনন ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ না করায় নদীর এই করুণ দশা। নদী ভরাট হয়ে পড়ায় এখন সোনাই নদীতে পানিপ্রবাহ কমে গেছে। শুষ্ক মৌসুমে নদীতে পানি থাকায় নদী পাড়ের কৃষকরা বোরো চাষাবাদ করতে পারছে না। এক সময় সোনাই নদী দিয়ে নদীপথে অনেক নৌযান চলাচল করত। এর তলদেশ ভরাট হওয়ায় এ পথে নৌযান চলাচল করতে পারছে না।

পরিবেশবিদরা বলছেন, এ অবস্থা চলতে থাকলে মাধবপুর সোনাই নদী এক সময় মরা নদীতে পরিণত হবে।

স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ জাহির মিয়া বলেন, সোনাই নদীটি একসময় ভাটি অঞ্চলের মানুষের মাধবপুর বাজারে নৌ পথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম ছিল। এখন এই নদী দিয়ে নৌযান চলাচল করতে পারছে না।

বিশিষ্ট পরিবেশবিদ আরাফাত ফরিদ বলেন, মাধবপুরের অন্যতম সোনাই নদী একসময় মাছের প্রধান আবাসস্থল ছিল। যেকোনো মূল্যে সোনাই নদীকে তার অতীত গৌরব ফিরে আনার জন্য সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে।

এক সময় ব্যবসায়ীরা নদীপথেই পণ্য সামগ্রী আনা-নেওয়া করত। ঢাকা সিলেট মহাসড়কের পাশে নদীর অবস্থান থাকায় সড়ক পথ ও নদীপথের যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই সহজ ছিল। কিন্তু কালের গর্বে মাধবপুর সোনাই নদী কোন সংস্কার না করায় আজ সোনাই নদী মরতে বসেছে। বাজারের ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন এখন নদীতে ময়লা ফেলে নদী দুষণ ও ভরাট করছে। ময়লা ফেলার জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে একটি নির্দিষ্ট স্থান করা হলে নদীকে বাঁচানো সম্ভব হবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্টরা।

এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে মাধবপুর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মানিক বলেন, মাধবপুর পৌরসভার নিজস্ব কোনো ডাম্পিং স্টেশন নেই। তবে ময়লা-আর্বজনা ফেলার জন্য স্যানিটারি ফিল্ড করার জমির ব্যবস্থা হয়ে গেছে। সরকারি বরাদ্দ পেলে মাধবপুর পৌরসভার সকল বর্জ্য ডাম্পিং স্টেশনে ফেলা হবে। এতে পরিবেশের কোনো দূষণ হবে না।

মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মনজুর আহসান জিসান বলেন, সোনাই নদীর অতীত ঐতিহ্য ও গৌরব ফিরে পেতে সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে।

Recent comments

Latest Comments section by users

No comment available

সর্বশেষ সংবাদ